অস্ত্র বিক্রিতে আমেরিকার নতুন রেকর্ড; প্রধান ক্রেতা রিয়াদ - (২৭ আগস্ট ২০১৪)

From Sunnipedia
Jump to: navigation, search
Jet.jpg

২৭ আগস্ট (রেডিও তেহরান) : সারা বিশ্বে মার্কিন অস্ত্র বিক্রির পরিমাণ তিনগুণ বেড়ে গেছে। আমেরিকার কংগ্রেশনাল রিসার্চ সার্ভিসের নতুন এক রিপোর্টে এ কথা বলা হয়েছে। দেশটি চলতি বছর অস্ত্র বিক্রি থেকে আয় করেছে ছয় হাজার ছয়শ' ৩০ কোটি ডলার। নিউ ইয়র্ক টাইমস এ হিসাব প্রকাশ করেছে।

এ হিসাবের মাধ্যমে দেশটির কৃষি ও অন্যান্য খাতে আয়ের চেয়ে অস্ত্র খাতে আয়ের পরিমাণ অনেক বেশি তা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।

২০১০ সালে আমেরিকা অস্ত্র বিক্রি করেছিল দু'হাজার একশ' ৪০ কোটি ডলারের। এর আগে, ২০০৯ সালে আমেরিকা রেকর্ড তিন হাজার একশ' কোটি ডলারের অস্ত্র রপ্তানী করেছিল। কিন্তু, ২০১১ সালে দেশটি সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। এ বছর মার্কিন অস্ত্রের প্রধান ক্রেতা হিসেবে নাম লিখিয়েছে সৌদি আরব। রিয়াদ গত বছর আমেরিকা থেকে সর্বোচ্চ তিন হাজার তিনশ' কোটি ডলারের অস্ত্র কিনেছে। এর মধ্যে কয়েক ডজন এফ-15 জঙ্গীবিমান রয়েছে।

এছাড়া, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং ওমানও বিপুল অর্থের অস্ত্র কিনেছে। তবে, শুধুমাত্র সৌদি আরবের কাছে বিক্রি করার অর্থের বিনিময়ে আমেরিকায় প্রায় ৭৫ হাজার কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়েছে।

মার্কিন কংগ্রেশনাল কমিটির এ রিপোর্টে বলা হয়েছে- ২০১১ সালে সারা বিশ্বে যে অস্ত্র বিক্রি হয়েছে তার শতকরা ৭৮ ভাগ একা আমেরিকার দখলে ছিল। এর বিপরীতে রাশিয়া মাত্র চারশ' ৮০ কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রি করতে পেরেছে।

সামরিক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অনেকেই মনে করেন, মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর কাছে আমেরিকা অনেকটা চাপ এবং ইরানভীতি সৃষ্টি করে হাজার হাজার কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রি করছে। সেই সঙ্গে মুখে মানবাধিকার ও গণতন্ত্রের কথা বললেও মার্কিন প্রশাসন যে এগুলোর কোনোকিছুই তোয়াক্কা করে না তা দেশটির অস্ত্র বিক্রির পরিমাণ দেখলেই পরিষ্কার হয়ে যায়। মধ্রপ্রাচ্যসহ বিশ্বের যেসব দেশে সরকারি ব্যবস্থাপনায় মানবাধিকার লংঘনের ঘটনা ঘটছে তার সব জায়গায় মার্কিন অস্ত্র ব্যবহৃত হচ্ছে।#

তথ্যসূত্র