ইমাম মুসলিম (রহঃ)

From Sunnipedia
Jump to: navigation, search

ইমাম মুসলিম (র)-এর পূর্ণ নাম আবুল হুসাইন মুসলিম ইবনুল হাজ্জাজ আল-কুশাইরী আন্-নিশাপুরী। তিনি ২০৪ হিজরী সনে খুরাসান অন্তঃপাতী নিশাপুরে জন্মগ্রহণ করেন। শৈশবকাল থেকেই তিনি হাদীস শিক্ষায় আত্মনিয়ােগ করেন। হাদীস শিক্ষার উদ্দেশ্যে তিনি মুসলিম জাহানের সব কয়টি কেন্দ্রেই গমন করেন। ইরাক, হিজায, সিরিয়া, মিসর প্রভৃতি শহরে উপস্থিত হইয়া তথায় অবস্থানকারী হাদীসের বড় বড় উস্তাদ ও মুহাদ্দিসদের নিকট হইতে হাদীস শিক্ষা ও সগ্রহ করেন।

ইমাম বুখারী (র) যখন নিশাপুর উপস্থিত হন, তখন ইমাম মুসলিম (র) তাহার সঙ্গ ধারণ করেন। তাহার বিরাট হাদীস জ্ঞান হইতে তিনিও যথেষ্ট মাত্রায় অংশগ্রহণ করেন।

এই শহরে ইমাম বুখারী (র)-এর বিরুদ্ধে প্রবল প্রচারণা চলিতে শুরু করিলে ইমাম মুসলিম ইহার প্রতিরােধ করিতে চেষ্টিত হন। একদিন একটি ঘটনা ঘটিয়া যায়। তিনি তাঁহার হাদীসের উস্তাদ মুহাম্মাদ ইবনে ইয়াহইয়া আলীর মজলিসে অন্যান্য শিক্ষার্থীর সহিত উপস্থিত ছিলেন। মুহাদ্দিস যাহ্‌লী সহসা ঘােষণা করেনঃ

বিশেষ একটি মাসয়ালায় যে লােক ইমাম বুখারীর মত বিশ্বাস করে ও তাহার রায় কবুল করে, সে যেন আমার এই মজলিস হইতে উঠিয়া যায়।

ইহা শ্রবণের সঙ্গে সঙ্গে ইমাম মুসলিম উঠিয়া দাঁড়াইলেন এবং নিজের ঘরে ফিরিয়া আসিয়া এই উস্তাদের নিকট হইতে শ্রুত ও গৃহীত হাদীসসমূহের লিখিত সম্পদ ফেরত পাঠাইয়া দিলেন। অতঃপর তিনি যাহূলীর সূত্রে হাদীস বর্ণনা করা সম্পূর্ণরূপে পরিত্যাগ করেন।

ইমাম মুসলিম হাদীস সম্পর্কে বিরাট ও বিশাল জ্ঞানের অধিকারী ছিলেন। তিনি যে হাদীসের ইমাম ছিলেন এ বিষয়ে হাদীসজ্ঞ ব্যক্তিগণ সম্পূর্ণ একমত।[1]সেকালের বড় বড় মুহাদ্দিসগণ তাহার নিকট হইতে হাদীস শিক্ষা ওগ্রহণ করিয়াছেন। এই পর্যায়ে আবু হাতিম আর-রাযী, মূসা ইবনে হারুন, আহমদ ইবনে সালমা, ইয়াহইয়া ইবনে সায়েদ, মুহাম্মাদ ইবনে মাখলাদ এবং ইমাম তিরমিযী প্রমুখের নাম বিশেষভাবে উল্লেখযােগ্য। তাহারা ইমাম মুসলিমের বিরাটত্ব ও শ্রেষ্ঠত্ব সম্পর্কে একমত। হাদীসে ইমাম মুসলিমের অতি উচ্চ মর্যাদা ও স্থানের কথা তাঁহারা সকলেই স্বীকার করিয়াছেন। উপরন্তু ইমাম মুসলিম (র)-এর মহামূল্য গ্রন্থাবলী ও তাহার গভীর পাণ্ডিত্যের কথা অকাট্যভাবে প্রমাণ করে। তাহার গ্রন্থাবলীর মধ্যে অধিকাংশই হাদীস ও হাদীস সম্পর্কিত জরুরী বিষয়ে প্রণীত। তন্মধ্যে তাঁহার সহীহ মুসলিম, আল-মুসনাদুল কবীর ও আল-জামেউল কবীর বিশেষভাবে উল্লেখযােগ্য। ইমাম মুসলিম ২৬১ হিজরী সনে ৫৭ বৎসর বয়সে নিশাপুরে ইন্তেকাল করেন।[2]

তথ্যসূত্র

  1. pending
  2. pending
  • হাদিস সংকলনের ইতিহাস (লেখকঃ মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুর রহীম)