জিন সাহাবার প্রতি ভবিষ্যদ্বাণী, ‘যমানার শ্রেষ্ঠ মু’মিন তোমার দাফন করবে’

From Sunnipedia
Jump to: navigation, search

হযরত উমর ইব্ন আবদুল আজিজ সম্পর্কে হযরত উসায়দ বর্ণনা করেন, উমর (ইব্ন আবদুল আজিজ) মক্কা যাচ্ছিলেন। মরুপথে একটি সাপকে মৃত পড়ে থাকতে দেখে তিনি গর্ত করার হাতিয়ার আনতে বললেন। তারপর গর্ত করে সাপটিকে একটা কাপড়ে জড়িয়ে তাতে দাফন করে দিলেন। তকন অদৃশ্য একটা আওয়াজ ভেসে এলো, হে সরক ! তুমি কোন্ মরুভূমিতে মারা যাবে এবং আমার উম্মতের শ্রেষ্ঠ ব্যক্তি তোমাকে দাফন করবে।” [সরক ছিল মৃত জিনটির নাম ; তিনি রাসূলুল্লাহ্ (সা)-এর সাহাবী ছিলেন।] (বায়হাকী)

রাসূলল্লাহ্ (সা)-এর ভবিষ্যদ্বাণী অনুযায়ী তাঁর উম্মতের শ্রেষ্ঠ ব্যক্তি খলিফাতুল মুসলিমিন হযরত উমর ইব্ন আবদুল আজিজ তাকে দাফন করলেন, যিনি খোলাফায়ে রাশিদীনের সর্বশেষ ব্যক্তি ছিলেন।

এরকমেরই আর একটি বিবরণ হযরত আবূ রাশেদ কর্তৃক বর্ণিত হয়েছে। তিনি বলেনঃ একবার হযরত উমর ইব্ন আবদুল আজিজ আমাদের কাছে চিলেন। তিনি যখন চলে যাবেন আমার মুনিব আমাকে হুকুম করলেন, তুমি উমর ইব্ন আবদুল আজিজ-এর সাথে যাও এবং তাঁর সাথেই থেক। আমি তাঁর সাথে সওয়ার হলাম। মুরুভূমিতে গিয়ে পথের মাজে একটা মরা সাপ দেখলাম। তিনি (উমর অবতরণ করলেন এবং সাপটিকে পথ থেকে সরিয়ে এক জায়গায় দাফন করে দিলেন। তারপর আমরা আবার রওয়না হলাম। তখন শুনলাম, ‘ইয়া খারকা’ ‘ইয়া খারকা’ বলে কেউ বিলাপ করছে। উমর ইব্ন আবদুল ডানে-বামে কাউকে না দেখে বললেনঃ আল্লাহর কসম দিলাম, যদি আত্মপ্রকাশ সম্ভব হয় তবে তুমি প্রকাশিত হও। অথবা বল এই খারাটি কে ? তখন অদৃশ্য আওয়াজকারী বলল, খারকা হলো। সেই জিনটির নাম যাকে আপনি সাপরুপে দাফন করেছেন। আমি রাসূলুল্লাহ্ (সা)-কে বলতে শুনেছিলাম, তিনি একদিন খারকাকে বলেছিলেন, ‘খারকা ! তুমি মরুভুমিতে মারা যাবে, সেই সময়ে মু’মিনদের মাঝে যিনি সর্বশ্রেষ্ঠ সে-ই তোমকে দাফন করবে।’

উমর বললেনঃ তোমার উপর আল্লাহর রহমত হোক। কে তুমি ? সে বলল, যারা এই স্থানে একদিন রাসূলুল্লাহ্ (সা)-এর হাতে বায়আত করেছিল আমি তাদের একজন। হযরত উমর ইব্ন আবদুল আজিজ তাকে আল্লাহর কসম দিয়ে জিজ্ঞেস করলেন, তুমি কি খোদ রাসলুল্লাহ্ (সা)-এর কাছ থেকেই একথা শুনেছিলে ? সে বলল, হ্যাঁ। একথা শুনে উমর ইব্ন আবদুল আজিজের দু’চোখ পানিতে ভরে গেল। এরপর আমরা রওয়ানা হয়ে গেলাম। (বায়হাকী) মূলত: দুটি ঘটনাই এক। কোন রাবী হয় তো জিনটির নাম ভুল শুনেছিলেন। সেজন্য দুটি বর্ণনায় নাম দু’রকম এসেছে।

তথ্যসূত্র

  • রাসুলুল্লাহ (সঃ) এর জীবনে আল্লাহর কুদরত ও রুহানিয়াত (লেখকঃ মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুল গফুর হামিদী, প্রকাশকঃ ইসলামিক ফাউন্ডেশন, বাংলাদেশ)