মেঘমালার উপর কর্তৃত্ব

From Sunnipedia
Revision as of 19:11, 5 January 2016 by Khasmujaddedia1 (Talk | contribs)

(diff) ← Older revision | Latest revision (diff) | Newer revision → (diff)
Jump to: navigation, search
শিক্ষনীয় ইসলামী ঘটনাসমূহ 1

















  • মেঘমালার উপর কর্তৃত্ব












মদিনা মনোয়ারায় একবার বৃষ্টি না হওয়ায় দুর্ভিক্ষ দেখা দিয়ে ছিল। লোকেরা খুবই চিন্তিত হলো। এক জুমাবারে হুযুর (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) যখন খুতবা দিচ্ছিলেন, এক বেদুইন দাঁড়িয়ে আরয করলো, ইয়া রাসুলল্লাহ,! ক্ষেত খামার ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। সন্তান-সন্ততি উপবাস থাকছে। আপনি দুআ করুন, যেন বৃষ্টি হয়। হুযুর (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) তার প্রিয় নুরানী হাত মুবারক উঠালেন (বর্ননাকারীর বক্তব্য) আসমান তখন একদম পরিস্কার ছিল। মেঘের কোন নাম নিশানা ছিল না। কিন্তু মদনী সরকারের হাত মুবারক উঠানো মাত্রই পাহড়ের মত মেঘে ছেয়ে গেল। দেখতে দেখতে বৃষ্টি শুরু হয়ে গেল। হুযুর তখনও মিম্বরে ছিলেন, ছাদ টপকিয়ে পানি পড়তে ছিল এবং হুযুরের হাত মোবারক থেকে পানির ফোঁটা নিচে পড়তে ছিল। এ বৃষ্টি আর বন্ধ হয় না। পরবর্তী জুমার দিন হুযুর (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) যখন খুতবা দিতে উঠলেন, তখন সেই বেদুইন, যে এর আগের জুমায় বৃষ্টি না হওয়ার কারনে কষ্টের কথা আরয করেছিল, দাঁড়িয়ে আরয করলো, ইয়া রসূলুল্লাহ! এখনতো ক্ষেতখামার ডুবে যাচ্ছে, ঘরবাড়ী পড়ে যাচ্ছে। আপনি দুআ করুন যেন বৃষ্টি বন্ধ হয়ে যায়। হুযুর (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) তখন তাঁর প্রিয় নুরানী হাত মুবারক উঠালেন এবং স্বীয় আঙ্গুলী মুবরিক দ্বারা ইশারা করে দুআ করলেন, হে আল্লাহ! আমাদের আশে পাশে বৃষ্টি হোক কিন্তু আমাদের উপর বৃষ্টি পতিত না হোক, হুযুরের ইশারা করা মাত্রই যে দিকে হুযুরের আঙ্গুলী মুবারক গেছে সেদিকে বৃষ্টি বন্ধ হয়ে গেছে এবং মদীনা মনোয়ারার উপরস্থ আসমান পরিস্কার হয়ে গেল।

সবকঃ

সাহাবায়ে কিরাম যেকোন বিপদের সময় হুযুরের বারগাহে ফরিয়াদ নিয়ে আসতেন । তাদের দৃঢ় বিশ্বাস ছিল যে, এখানে সব সমস্যার সমাধান পাওয়া যায় । এখনও আমরা হুযুরের মুখাপেক্ষী, হুযুরের উসিলা ব্যতীত আমরা আল্লাহ থেকে কিছুই পেতে পারি না । মেঘমালার উপরও হুযুরের কর্তৃত্ব রয়েছে ।

তথ্যসূত্র

  • মিশকাত শরীফ ৫২৮ পৃঃ
  • ইসলামের বাস্তব কাহিনী - ১ম খন্ড